বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১, ১৫ মাঘ ১৪২৭

অনলাইন ডেস্ক

Nov. 24, 2020, 6:51 p.m.

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে ঢাকাকে হারিয়ে রাজশাহীর জয়
বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে ঢাকাকে হারিয়ে রাজশাহীর জয়
ভোরের আলো। - ছবি:


বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের টানটান উত্তেজনার ম্যাচে ঢাকাকে ২ রানে হারিয়ে উদ্বোধনী ম্যাচ জিতে নিল রাজশাহী। শুরুতে ব্যাট করে ৯ উইকেট হারিয়ে মেহেদি হাসানের অর্ধশতকে ভর করে ১৬৯ রান সংগ্রহ করে রাজশাহী। জবাবে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৭ রান তুলতে সক্ষম হয় ঢাকা। এতে দুই রানের হারের মুখ দেখে ঢাকা।

মিরপুরে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে রাজশহীর দুই ওপেনার শান্ত ও আনিসুল ইসলাম ইমন ৩১ রান যোগ করেন। শান্ত ৩১ রান করে আউট হন। এরপর রনি তালুকদার (৬), মোহাম্মদ আশরাফুল (৫), ফজলে মাহমুদ (০) ও ইমন (৩৫) দ্রুত বিদায় নিলে ৬৫ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় রাজশাহী।

ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে নুরুল হাসান সোহান ও শেখ মেহেদি হাসান দলকে চাপ মুক্ত করার দায়িত্ব নেন। তাদের ঝড়ো গতির ব্যাটিং সেই কাজটি সহজ করে দেয়। ৮৯ রানের জুটি গড়েন তারা। মেহেদি ৩১ বলে অর্ধশতক তুলে নেন। দলীয় ১৫৪ রানের মাথায় সোহান ২০ বলে ৩৯ রান করে আউট হন। মেহেদি অবশ্য ইনিংস আর টেনে নিয়ে যেতে পারেননি। ৫০ রান করেই আউট হন তিনি। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৬৯ রান করে রাজশাহী।

ঢাকার মুক্তার আলী ৩টি ও মেহেদি হাসান রানা, নাসুম আহমেদ ও নাঈম হাসান ১টি করে উইকেট নেন।

১৭০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ভালো কিছুর আভাস দেন ঢাকার ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম। তবে দুর্ভাগ্যজনক রানআউটের শিকার হয়ে দলীয় ১৯ রানে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। ১১ বলে ২ চার ও এক ছয়ে ১৮ রান করে আউট হন তিনি। এরপর স্কোরবোর্ডে ৩৮ রান উঠতেই দ্বিতীয় ধাক্কা খায় মুশফিকের দল। আরেক ওপেনার ইয়াসির আলীও ফেরেন সাজঘরে।

দ্বিতীয় উইকেটে ব্যাটিংয়ে নামা নাঈম শেখ ১৭ বলে ২ চার ও ২ ছয়ে ২৬ রান করে আউট হন। ৫৫ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে ঢাকা। চতুর্থ উইকেটে আকবর আলীকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক মুশফিক। এ দুইজনের ব্যাটে জয়ের স্বপ্ন দেখে ঢাকা। দলীয় ১২৬ রানে আকবর আলীকে আউট করে রাজশাহীকে ম্যাচে ফেরান ফরহাদ রেজা। আউট হওয়ার আগে আকবর আলী ২৯ বলে খেলেন ৩৪ রানের ইনিংস। এরপর ফিরে যান মুশফিকও। ৩৪ বলে ৪১ রান করা মুশফিককে আউট করেন এবাদত হোসেন।

মুশফিকের বিদায়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় ঢাকা। শেষ দুই ওভারে ঢাকার প্রয়োজন হয় ৩০ রান। ১৯তম ওভারে ২১ রান তুলে ঢাকাকে জয়ের স্বপ্ন দেখান মুক্তার আলী। তবে শেষ ওভারের ব্যর্থতায় ম্যাচ হারে ঢাকা। শেষ ওভারে তাদের দরকার ছিল ৯ রান আর ঢাকা তোলে ৭ রান। নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে দলকে ২ রানের জয় উপহার দেন মুক্তার আলী।