অনলাইন ডেস্ক

Feb. 13, 2020, 12:22 a.m.

টিআইবি’র প্রশংসা করলেন দুদক চেয়ারম্যান
টিআইবি’র প্রশংসা করলেন দুদক চেয়ারম্যান
দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ - ছবি: ফাইল ছবি

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, টিআইবি’র কার্যক্রম প্রশংসনীয়। দুদকের কৌশলগত সহযোগী সংস্থাটি। তবে আমার কেনো যেন মনে হয়, সরকারি প্রতিষ্ঠানের ভালো কাজকে প্রশংসা করতে টিআইবি কার্পণ্য করে।

টিআইবির সমালোচনাকে স্বাগত জানিয়ে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, সমালোচনার পাশাপাশি ভালো কাজের প্রশংসাও করা উচিত। বুধবার দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে আর্ন্তজাতিক এন্টিকরাপশন অ্যান্ড গভার্ননেন্স বিশেষজ্ঞ দলের সাথে এক মতবিনিময় এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশন শিক্ষা ক্ষেত্রে দুর্নীতি দমন, প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে যেমন কাজ করছে ঠিক তেমনি কমিশনের নিজস্ব সামর্থে দেশের ২৬ হাজারেরও বেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা, রচনা প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের তরুণ প্রজন্মের মাঝে সততা ও নৈতিক মূল্যবোধ গ্রোথিত করার চেষ্টা করছে।

এ সময় দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে সুশাসন নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে দুর্নীতি দমন কমিশন আইনি প্রক্রিয়ায় কার্যকর ভূমিকা পালন করে। কমিশন দুর্নীতি দমনের পাশাপাশি প্রতিরোধ, সরকারি পরিষেবা প্রদানে বিজনেস প্রসেস রি-ইঞ্জিনিয়ারিং এবং তৃণমূল পর্যায়ে সরকারি কর্মকর্তাদের জবাবদিহিতা নিশ্চিতকল্পে গণশুনানিসহ বহুমুখী কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

তিনি বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশন সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যবস্থাপনাায় উপকারভোগী জনগণকে সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে এ ব্যবস্থাপনায় সংস্কার প্রত্যাশা করে। কারণ কমিউনিটি সদস্যদের সক্রিয় অংশগ্রহণই প্রকল্পকে জনবান্ধব কার্যক্রমে পরিণত করতে পারে। উপকারভোগীদের প্রকল্পের প্রতি মমত্ববোধ ও আমিত্ব সৃষ্টি করতে পারে। তাই প্রকল্প ব্যবস্থাপনা চক্রে অবশ্যই সিভিল সোসইটির প্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করার ব্যবস্থা নেওয়া সমীচীন। এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, সোস্যাল অডিট হতে পারে প্রকল্পের স্বচ্ছত ও জবাবদিহিতার অন্যতম কৌশল।

তিনি বলেন, উন্নয়ন টেকসই করতে হলে নৈতিকমূল্যবোধ সম্পন্ন মানসম্মত শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। শুধু সার্টিফিকেট নির্ভর শিক্ষা দিয়ে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ড অর্জনও কঠিন। সক্ষম ও দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টি করা না গেলে বিশ্ব অর্থনীতি যে ১১ রাষ্ট্রের তালিকায় বাংলাদেশ রয়েছে-তা ধরে রাখাও কঠিন চ্যালেজ্ঞ হবে।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দুদক প্রতিরোধ অনুবিভাগের মহাপরিচালক এ কে এম সোহেল।