নিজস্ব প্রতিবেদক

Feb. 13, 2020, 11:53 p.m.

পবিপ্রবি’তে কৃষিবিদ দিবস পালিত
পবিপ্রবি’তে কৃষিবিদ দিবস পালিত
কৃষিবিদ দিবস - ছবি:

‘বঙ্গবন্ধু’র অবদান, কৃষিবিদ ক্লাস ওয়ান’ শ্লোগানকে সামনে রেখে যথাযোগ্য মর্যাদায় পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃষিবিদ দিবস-২০২০ পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় একাডেমিক ভবনের সামনে বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতিতে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. হারুনর রশীদ।

পরে একাডেমিক ভবনের সামনে থেকে উপাচার্যের নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে ক্যাম্পাস ও দুমকি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে টিএসসি ভবন চত্ত্বরে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালী শেষে টিএসসি ভবনের কনফারেন্স রুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
প্রফেসর ড. মো. ফজলুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. হারুনর রশীদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর মোহাম্মদ আলী।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন প্রক্টর প্রফেসর ড. আবুল কাশেম চৌধুরী, রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত, অধ্যাপক ড. মো. লোকমান আলী, সহকারী রেজিস্ট্রার মো. ওয়াজ কুরুনী ও শিক্ষার্থী তুষার কান্তী প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ও সহকারি অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন মন্ডল। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. মো. হারুনর রশীদ বলেন, বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। বাংলার কৃষক ও কৃষিবিদরা মিলে এই অসাধ্যকে সাধন করেছে। কৃষির অন্যতম চ্যালেঞ্জ হচ্ছে খাদ্যের পুষ্টিমান ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। আরেকটি হচ্ছে কৃষিকে লাভজনক ও বাণিজ্যিক করা। এটি করতে হলে কৃষিকে আধুনিকায়ন করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ১৯৭৩ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের চত্বরে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদদের প্রথম শ্রেণির মর্যাদা প্রদান করেন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ২০১০ সালের ২৭ নভেম্বর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের (কেআইবি) এক সাধারণ সভায় ১৩ ফেব্রুয়ারিকে কৃষিবিদ দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ২০১১ সাল থেকে প্রতি বছরই দিবসটি পালিত হয়ে আসছে।