বুধবার, ০৩ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

অনলাইন ডেস্ক

May 10, 2020, 9:57 p.m.

মুশফিকের কাছে বিশাল প্রত্যাশা মাশরাফির
মুশফিকের কাছে বিশাল প্রত্যাশা মাশরাফির
মুশফিক এবং মাশরাফি। - ছবি: সংগৃহীত।

তিনি এখন আর কোনো ফরম্যাটেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক নন। গত মার্চে ওয়ানডে অধিনায়কত্ব থেকেও সরে দাঁড়িয়েছেন মাশরাফি। তাই পারফরমার মুশফিকের কাছ থেকে এখন আর তার কোন প্রত্যাশা করারও সুযোগ নেই।

কিন্তু ভেতরের খবর হলো, এখনো মুশফিকের কাছে বিশাল প্রত্যাশা মাশরাফির। ভাবছেন, নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়েছেন তো কি হয়েছে? একসঙ্গে এক যুগের বেশি সময় খেলেছেন, বড় ভাই-ছোট ভাই সম্পর্কটা তো আছে। হয়তো অটুট থাকবে চিরকাল। তার সূত্র ধরেই হয়তো ব্যাটসম্যান মুশফিকের কাছে বড় রান আর ম্যাচ জেতানো ইনিংসের প্রত্যাশা করছেন মাশরাফি!

আসলে ব্যাপারটি তেমন নয়। গতকাল ৯ মে শনিবার মুশফিকের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়েই নাকি মাশরাফি সেই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন। কি সেই প্রত্যাশা? তা আর কিছুই নয়, ‘পঞ্চ পান্ডবের মধ্যে একটি অপূর্ণতা আছে। সে অপূর্নতা পূরণের আশাই ব্যক্ত করেছেন মাশরাফি।’

পঞ্চ পান্ডবের পাঁচ ক্রিকেটারের মধ্যে মাশরাফি, মাহমুদউল্লাহ, সাকিব ও তামিম প্রত্যেকে দুটি করে সন্তানের জনক। মানে ওই চারজনের সবারই সন্তান দুইজন করে। শুধু মুশফিকুর রহীমেরই এখনও পর্যন্ত এক সন্তান।

সেদিন তামিম ইকবালের সঞ্চালনায় ফেসবুক লাইভে এসে মাশরাফি সেই জোড়া (সন্তান) পূরণের আবদারই করছেন মুশফিকের কাছে। গতকাল শনিবার রাতে ফেসবুক লাইভেও উঠলো সেই প্রসঙ্গ।

সঞ্চালক তামিম মুশফিকের কাছে জানতে চাইলেন, মাশরাফি ভাইতো আপনাকে জোড়া পুরনের অনুরোধ করেছেন। আপনি জোড়া পূরণ করলেই পঞ্চপান্ডবের হিসেব বরাবর হয়ে যায়। এ সম্পর্কে আপনার ভাবনা কি?

মুশফিক হেসে জবাব দেন, ‘মাশরাফি ভাই সবসময়ই ফানি (মজার) কথা বলেন। আমাদের অনুপ্রাণিত করেন। উদ্দীপক কথা বলে উজ্জীবিত রাখেন। আমাকে জন্মদিনের

শুভেচ্ছা জানাতে গিয়েও অনেক মজার মজার কথাই বলেছেন। সেখানেও ওই প্রসঙ্গ তুলেছিলেন। আসলে এটা তো আর আমার হাতে না। সব আল্লাহর ইচ্ছে।’
মুশফিক শেষে মজা করে বলেন, ‘দেখা যাক! বড় ভাই যখন বলেছেন, আল্লাহ কি করেন?’ যদিও চেষ্টাটা মুশফিককেই করতে হবে এ ক্ষেত্রে।