বুধবার, ০৩ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

May 11, 2020, 10:17 p.m.

গবেষণায় আন্তর্জাতিক স্থানে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়
গবেষণায় আন্তর্জাতিক স্থানে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় - ছবি:


বিশ্বখ্যাত গবেষণা প্রকাশনী সংস্থা ‘নেচার’ কর্তৃক পরিচালিত ‘নেচার ইন্ডেক্স ২০২০’ এ স্থান করে নিয়েছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি)। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক ইলিয়াস মাহমুদের গবেষণা প্রবন্ধ নেচার ইনডেক্সে প্রকাশের মাধ্যমে গবেষনায় বিশ্বমানের স্বীকৃতি অর্জন করলো ববি। গত ৩০ এপ্রিল নেচার ইনডেক্স তাদের এ বছরের প্রকাশনী উন্মুক্ত করে।

নেচার ইন্ডেক্স হচ্ছে গবেষক ও তার প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অন্য প্রতিষ্ঠানের পারস্পরিক সম্পর্ক গঠনের মাধ্যম। যুক্তরাজ্য ভিত্তিক একাডেমিক ও প্রযুক্তিগত গবেষনা প্রকাশনী সংস্থা ‘নেচার’ প্রতিবছর প্রকৃতিগতভাবে মানুষ কিভাবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে অথবা রোগ বালাইয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করে তা নিয়ে মানসম্পন্ন গবেষণাপত্র প্রকাশ করে থাকে। প্রতিবছর বিশ্বমানের ৮২টি গবেষণাপত্রের লেখক ও তাদের প্রতিষ্ঠানকে ন্যাচার ইন্ডেক্স অন্তর্ভূক্ত করে থাকে এবং তাদের কাজ সেই বছরের উচ্চ মানসম্পন্ন গবেষনা কাজের নির্দেশক হিসেবে ধরা হয়।

ঢাকার মহাখালীর আন্তর্জাতিক উদারাময় গবেষণা কেন্দ্র (আইসিডিডিআরবি), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও আমেরিকার বেসরকারি কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় ববি শিক্ষক ইলিয়াস মাহমুদের ‘পিট লেট্রিন (আধাপাকা টয়লেট) থেকে ভূগর্ভস্থ পানি দূষণ কমানো’ বিষয়ক একটি গবেষণাপত্র আমেরিকান ক্যামিকেল সোসাইটি (এসিএস) থেকে প্রকাশিত গবেষণা পত্রিকা ইনভায়রনমেন্টাল সাইন্স এন্ড টেকনোলজিতে প্রকাশিত হয় গত বছর। সেই গবেষণাপত্রের প্রেক্ষিতে শিক্ষক ইলিয়াস মাহমুদের কর্মক্ষেত্র বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এ বছর নেচার ইন্ডেক্সের অন্তর্ভূক্ত হয়। যা বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়কে দিয়েছে বিশেষ সম্মাননা।

২০১৮ সালের পহেলা ডিসেম্বর থেকে ২০১৯ সালের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত ‘নেচার’ ইনডেক্স পরিচালিত জরিপে বাংলাদেশী গবেষকদের ৩৭টি গবেষণাপত্র স্থান পেয়েছে। যা প্রকাশ হয়েছে ২০২০ সালে। যারমধ্যে সবচেয়ে বেশী ১৪টি গবেষনাপত্র রয়েছে আইসিডিডিআরবি’র। এরপর ৮টি গবেষণাপত্র নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের রয়েছে ৩টি। এ ছাড়াও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সহ আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের ১ টি করে গবেষণাপত্র অন্তর্ভূক্ত হয়েছে ‘নেচার’ ইনডেক্সে- ২০২০ এ।

নিজের গবেষনাপত্র আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন গবেষনা সংস্থায় স্থান পাওয়ার বিষয়ে ববি শিক্ষক ইলিয়াস মাহমুদ বলেন, একজন শিক্ষক ও গবেষক হিসাবে হিসেবে এমন স্বীকৃতি অনেক বড় পাওয়া। এ অর্জন আগামী দিনের কাজে তাকে আরও উৎসাহিত করবে।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষকের গবেষনাকর্ম আন্তর্জাতিক গবেষনা প্রকাশনী সংস্থায় স্থান পাওয়ায় উৎফুল্ল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ছাদেকুল আরেফিন।

তিনি বলেন, করোনার এই দুর্যোগেও এই অর্জন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়কে গর্বিত করেছে। আন্তর্জাতিক এমন স্বীকৃতি বয়ে আনার জন্য শিক্ষক ইলিয়াস মাহমুদকে ব্যক্তিগতভাবে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি। তার এই অর্জন ববির শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের গবেষনাকর্মে অনুপ্রেরনা যোগাবে বলে মনে করেন উপাচার্য।