বৃহস্পতিবার, ০২ জুলাই ২০২০, ১৮ আষাঢ় ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

May 31, 2020, 10:12 p.m.

সাধারণ ছুটি শেষ তবুও বিসিবিতে বহাল থাকছে ‘হোম অফিস’
সাধারণ ছুটি শেষ তবুও বিসিবিতে বহাল থাকছে ‘হোম অফিস’
সংগৃহীত। - ছবি:

অন্যসময় হলে হয়ত গতকাল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে (বিসিবি) সাড়া পড়ে যেত। একটা উৎসবমুখর পরিবেশ তৈরি হতো বোর্ড অফিস ও কর্তাদের মাঝে। ৩১ মে (রোববার) যে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের জন্মদিন। বিসিবি স্টাফরা নিশ্চয়ই কেক কাটতেন।

কিন্তু তা আর হলো কই? করোনাভাইরাস সব উৎসব-আনন্দ কেড়ে নিয়েছে।

সাধারণ ছুটি শেষ হয়ে হয়েছে। পুরোদমে না হলেও সীমিত পরিসরে অফিস-আদালত খুলেছে। গণপরিবহনও চলতে শুরু করেছে। কিন্তু বিসিবি অফিস সেভাবে খোলেনি। শুধু যার যার জরুরি কাজ আছে, তারা বের্ডে এসে নিজের কাজ করে চলে যাবেন বাড়িতে।

এ সাধারণ ছুটি থেমে যাওয়ার প্রভাব দেশের ক্রীড়া ফেডারেশনগুলোর ওপর কতটা? তবে কি সেই মার্চের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে বন্ধ থাকা দেশের ক্রীড়া ফেডারেশনগুলোও গতকাল থেকেই খুলে গেছে বা যাবে? খেলা প্রেমীদের মনে জাগছে এ প্রশ্ন।

আসলে সবকিছু সচল হওয়া আর স্পোর্টস ফেডারেশন তথা বিসিবি, বাফুফে (বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন), আর বাহফে (হকি ফেডারেশন) সহ অন্যান্য খেলার ফেডারেশন খোলা এক নয়।
বলার অপেক্ষা রাখে না, ফেডারেশনগুলোর কর্মকা- পুরোপুরি খেলাধুলা কেন্দ্রিক। এখন খেলাই যেহেতু বন্ধ, ঘরোয়া এবং আন্তর্জতিক পর্যায়ে আপাতত কোন কার্যক্রম যেহেতু নেই, তাই ক্রীড়া ফেডারেশনগুলোরও আসলে সে অর্থে তেমন কোন কাজ নেই।

তাই গতকাল রোববার সেভাবে খোলেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড অফিসে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বোর্ড স্টাফদের এখন পর্যন্ত কাজে যোগদানের কোন নোটিশ দেয়া হয়নি। সব আগের মতই আছে, বহাল রাখা হয়েছে হোম অফিস পদ্ধতি। মানে সবাইকে বাসা থেকে নিজ নিজ কাজ করার কথা বলা আছে। বিশেষ দরকার থাকলে বা কোন জরুরি কাজে অফিসে আসার প্রয়োজন পড়লে তখন বোর্ডে যাবেন তারা।

উল্লেখ্য, সাধারণ ছুটি চলাকালীন সময়ের মধ্যেও দরকারি কাজে বোর্ড কর্তাদের কেউ কেউ অফিসে গিয়েছেন। আবার দরকারি কাজ শেষে ফিরে গেছেন নিজ গন্তব্যে। এখনও চলবে তাই। মোদ্দা কথা, বিসিবির কাজকর্ম সাধারণ ছুটি চলাকালীন সময়ের মতই চলবে।

বোর্ড স্টাফরা বাসা থেকেই অফিস করবেন। কোন বিশেষ প্রয়োজন পড়লে কেউ অফিসে যেতে পারেন।বোর্ড স্টাফদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তাদের কাছে কাজে যোগদানের নির্দেশ আসেনি। পরবর্তী নির্দেশ দেয়া না পর্যন্ত আগের মত বাসা থেকে কাজ করার কথা বলা হয়েছে।