শনিবার, ০৮ আগষ্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

June 3, 2020, 9:30 p.m.

কানে ব্যথা যেভাবে দূর করবেন
কানে ব্যথা যেভাবে দূর করবেন
সংগৃহীত। - ছবি:

কানে ব্যথার সমস্যাকে আপাতদৃষ্টিকে সাধারণ মনে হলেও এর ব্যথা কেবল ভুক্তভোগীরাই জানেন। সাধারণত কানে ব্যথা হয় ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের কারণে। দীর্ঘদিন ধরে সর্দিকাশিতে ভুগলেও অনেক সময় কানে ব্যথা হতে পারে। গোসলের সময় বেখেয়ালে কানে পানি ঢুকে গেলে তাও হতে পারে কানে ব্যথার কারণ।

কানে ব্যথা কমাতে হলে আগে সংক্রমণ কমাতে হবে। সংক্রমণ জটিল আকার ধারণ করলে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া উপায় নেই। তার আগে যন্ত্রণা কমিয়ে একটু স্বস্তি পেতে এই কাজগুলো করতে পারেন-

গরম সেঁক: কানে ব্যথা হলে গরম সেঁক নিলে আরাম পাওয়া যায়। কান থেকে পুঁজ বের হতে দেখলে গরম সেঁক নিন। তাতে কানের ভেতরে জমে থাকা পুঁজ বেরিয়ে যাবে, ব্যথাও কম হবে। গরমপানি পরিষ্কার কাপড় ভিজিয়ে নিংড়ে নিন। তারপর যে কানে ব্যথা, তার উপরে ভেজা কাপড়টা দিয়ে মিনিট দুই রাখুন। তারপর মাথা অন্যদিকে কাত করে পুঁজটা বেরিয়ে যেতে দিন।

ভিনেগার: ভিনিগারের অ্যাসিড কানের সংক্রমণ কমাতে পারে। সমপরিমাণ সাদা ভিনেগার আর রাবিং অ্যালকোহল নিন একটা পাত্রে। ড্রপার দিয়ে সংক্রমিত কানে দু’-তিন ফোঁটা দিন। পাঁচ মিনিট ওভাবেই শুয়ে থাকুন তারপর আগের মতোই মাথা অন্যদিকে কাত করে তরলটা কান থেকে বের করে দিন।

কান শুকনো রাখুন: গোসলের সময় কানে যেন কোনোরকম পানি ঢুকতে না পারে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। গোসল করতে যাওয়ার আগে কানে পেট্রোলিয়াম জেলি মাখানো তুলো গুঁজে নিন।

হাইড্রোজেন পারক্সাইড ড্রপ: যেকোনো ওষুধের দোকানে হাইড্রোজেন পারক্সাইড পাবেন। কানের ইনফেকশন কমিয়ে পুঁজ শুকোতে দারুণ ভালো কাজ করে এই দ্রবণটি। ড্রপারে করে তিন-চার ফোঁটা দ্রবণ ব্যথার কানে দিয়ে ওভাবেই শুয়ে থাকুন কিছুক্ষণ। তারপর মাথা অন্যদিকে কাত করে কানের ভিতরের তরলটা বের করে দিন। দিনে বেশ কয়েকবার করতে পারেন। ধীরে ধীরে সংক্রমণ কমে ব্যথাও কমে যাবে।

কান খোঁচাবেন না: কানে ব্যথা হলে অনেকেই কানে খোঁচাখুঁচি করেন। তাতে সংক্রমণ আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। কানে কোনোরকম ইয়ারবাড, দেশলাই কাঠি, সেফটিপিন জাতীয় জিনিস ঢোকাবেন না, তাতে সমস্যা আরও জটিল হতে পারে।
রসুনের তেল: সামান্য অলিভ অয়েলে এক কোয়া রসুন অল্প থেঁতো করে গরম করুন। তেল গরম হলে ছেঁকে নিয়ে তা সংক্রমিত কানে দু’-তিন ফোঁটা দিন। বারকয়েক এমন করলে একটু আরাম পাবেন।

নিমের রস: নিমপাতা ভালো করে ধুয়ে থেঁতো করে নিন। নিমপাতার এই রসটা কানে দিতে পারেন। অথবা নিমের তেলে তুলো ভিজিয়ে নিংড়ে কানে কয়েক মিনিট দিয়ে রাখুন। নিমে ব্যথা কমানোর গুণ রয়েছে যা কান ব্যথায়ও ফল দেয়।

কানে যদি ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ ঘটে থাকে, তা হলে এখানে দেওয়া টোটকাগুলো আপনাকে সাময়িক আরাম দেবে ও ব্যথা কমাতে সাহায্য করবে। কিন্তু তা পুরোদস্তুর চিকিৎসার বিকল্প নয়। তাই ব্যথা সাময়িক কমে গেলেও চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না।