শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বার ২০২০, ৫ আশ্বিন ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

July 28, 2020, 10:13 p.m.

নিজের পক্ষে শ্রমিকদের সাফাই গাইতে বললেন অভিযুক্ত চেয়ারম্যান!
নিজের পক্ষে শ্রমিকদের সাফাই গাইতে বললেন অভিযুক্ত চেয়ারম্যান!
মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বরিশাল প্রেসক্লাবে লিটন মোল্লার পক্ষে সাংবাদিক সম্মেলন। - ছবি: সংগৃহীত

চাঁদাবাজী ও হামলা মামলা থেকে রেহাই পেতে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান কামাল হোসেন লিটন মোল্লা নিজের পক্ষে সাফাই গাইতে শ্রমিকদের বাধ্য করেছেন সংবাদ সম্মেলন করতে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দিতে না পেরে এক পর্যায় সংবাদ সম্মেলন স্থান ত্যাগ করে চলে যান তারা।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বরিশাল প্রেসক্লাবে লিটন মোল্লার পক্ষে সাংবাদিক সম্মেলন করতে এসে সাংবাদিকদের নানা প্রশ্নে তোপের মুখে পড়েন তারা। এক পর্যায়ে লিটন মোল্লার আশ্রিত কথিত ‘সাংবাদিক ঐক্য পরিষদ’ সভাপতি নাজমুল হোসেন সংবাদিক সম্মেলন থেকে পালিয়ে যান। 
বরিশালে এক পরিবহন শ্রমিককে মারধর করে ২ লাখ ৪৩ হাজার ছিনিয়ে নেওয়ার মামলা থেকে বাঁচতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নগরীর নথুল্লাবাদ কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের অঘোষিত নিয়ন্ত্রক টেম্পু শ্রমিক নেতা ইউপি চেয়ারম্যান কামাল হোসেন লিটন মোল্লা।

দূরাপাল্লা রুটের পরিবহন শ্রমিকদের ব্যানারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে হানিফ পরিবহনের ম্যানেজার রানা হাওলাদার তাদের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। 
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে হানিফ পরিবহনের ম্যানেজার রানা হাওলাদার বলেন, ‘লিটন মোল্লা ও তার লোকজন চাঁদাবাজী করেন না, মামলাটি মিথ্যা। তিনি পরিবহন শ্রমিক ও টেম্পু শ্রমিকদের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরি করে টার্মিনালে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে এনেছেন’। 

বাস মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ সংবাদ সম্মেলনে নেই। ছিনতাই মামলার আসামীদের ৬ জন একটি গণধর্ষণসহ আরো অনেক মামলার আসামী, লিটন মোল্লাও একসময় গণধর্ষণ মামলার আসামী ছিলেন, তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজী, জমি দখলের সুনির্দিষ্ট অসংখ্য অভিযোগ আছে, দখল করা কাউন্টারে সাংবাদিক ঐক্য পরিষদ নামে ভূয়া সংগঠনের কার্যালয় কেন? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে বিব্রত হয়ে তড়িঘড়ি করে সাংবাদিক সম্মেলন শেষ করে সটকে পড়েন তারা। 

অভিযোগ আছে, বরিশাল সদর উপজেলার কাশীপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যান কামাল হোসেন লিটন মোল্লার নানা অপকর্মের কারণে বরিশাল উত্তরাংশ কাশীপুরের জনগণ এবং নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালের শ্রমিকরা তটস্থ। বরিশাল জেলা টেম্পু শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি পদে থাকার সুবাদে গত ফেব্রুয়ারিতে লিটন মোল্লা মহানগর শ্রমিকলীগ সভাপতি আফতাব হোসেনকে হটিয়ে বাস টর্মিনালের নিয়ন্ত্রণ নেন। এরপর থেকে তার নির্দেশে চলছে বাস টার্মিনালে সবকিছু। প্রতিটি দুরপাল্লা রুটের পরিবহন কাউন্টার থেকে প্রতি মাসে ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা মাসোহারা নেয়ার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। 

গোল্ডেন লাইন পরিবহন কোম্পানীর বরিশাল কাউন্টার ম্যানেজার শহিদুল ইসলাম অভিযোগ করেছেন, করোনা সংকটে পরিবহন বন্ধবাস্থায় মাসোহারা দিতে না পাড়ায় গত ২৪ জুলাই শুক্রবার রাতে তাকে মারধর করে সাথে থাকা কোম্পানীর ২ লাখ ৪৩ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় লিটন মোল্লার সহযোগীরা। এ ঘটনায় লিটন মোল্লাকে প্রধান আসামী করে তার ১১ সহযোগীর বিরুদ্ধে বিমান বন্দর থানায় মামলা করেছেন তিনি। 
টার্মিনালের অভ্যন্তরীণ একাধিক সূত্র জানায়, গত রোববার লিটন মোল্লার অনুগতরা চাঁদাবাজী মামলা থেকে বাঁচতে বাস টার্মিনালে মানববন্ধন ডেকে সাধারণ শ্রমিকদের ওই মানববন্ধনে অংশগ্রহণে বাধ্য করে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল বরিশাল প্রেসক্লাবে দুরপাল্লা রুটের পরিবহন শ্রমিকদের দিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করতে বাধ্য করা হয়। 

এর আগে গত সোমবার রাতে নথুল্লাবাদের অনেক পরিবহন শ্রমিক মুঠোফোনে অভিযোগ করেন, তাদের লিটন মোল্লার পক্ষে সংবাদ সম্মেলন করতে চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। লিটন মোল্লার পক্ষে না থাকলে নথুল্লাবাদে ঝামেলা বিহীন ব্যবসা করা অসম্ভব। তাই বাধ্য হয়ে সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেয়ার কথা বলেন তারা।