সোমবার, ০৩ আগষ্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭

অনলাইন ডেস্ক

July 31, 2020, 8:17 p.m.

‘রিয়া ভীষণ অত্যাচার করতো, মুক্তি চাইছিল সুশান্ত’
‘রিয়া ভীষণ অত্যাচার করতো, মুক্তি চাইছিল সুশান্ত’
সংগৃহীত। - ছবি:

‘রিয়া ভীষণ অত্যাচার করত, আর তাই শেষের দিকটায় সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চাইছিল সুশান্ত’, বিহার পুলিশের কাছে এমনই বিস্ফোরক বক্তব্য দিয়েছেন প্রয়াত সুশান্ত সিং রাজপুতের সাবেক প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখাণ্ডে।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করলেও এযাবৎকাল কোনও বিস্ফোরক মন্তব্যই করতে শোনা যায়নি অঙ্কিতাকে।

তবে এবার একে একে বিস্ফোরক বক্তব্য প্রকাশ করছেন তিনি।

‘দিল বেচারা’ অভিনেতার মৃত্যু নিয়ে জল্পনা-কল্পনায় নতুন মোড় নিয়েছে গত ২৬ জুলাই। এদিন সুশান্তের ‘বিশেষ বান্ধবী’ রিয়া চক্রবর্তী ও তার পরিবার ও ঘনিষ্ঠ ৫ জনের বিরুদ্ধে বিহারের রাজীবনগর থানায় মামলা দায়ের করেন সুশান্তের বাবা কৃষ্ণকুমার সিং। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই বিহার পুলিশের একটি বিশেষ টিম মুম্বাই পৌঁছায় তদন্তের জন্য। আর তদন্তের সুবাদেই সুশান্ত ঘনিষ্ঠদের বয়ান রেকর্ড করা শুরু হয়। ইতোমধ্যে অভিনেতার পরিচারিকা ও এক বোনের বক্তব্য রেকর্ড করা হয়েছে।

সুশান্তের প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখান্ডেও তার বক্তব্য জানিয়েছেন বিহার পুলিশের তদন্ত দলকে। আর সেখানেই তিনি বিস্ফোরক বক্তব্য রাখেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, বুধবার বিহার পুলিশের কাছে অঙ্কিতা জানিয়েছেন, ২০১৯ সালে যখন তার প্রথম বলিউড অভিষেক সিনেমা ‘মনিকর্ণিকা- দ্য ক্যুইন অফ ঝাঁসি’ মুক্তি পেল, সে সময় সুশান্ত তাকে ফোন করেছিলেন। শুভেচ্ছা বার্তা বিনিময়ের পর তখনই সুশান্ত তাকে জানান যে, তিনি রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছেন। সেই কথোপকথনেরই এক টুকরো অঙ্কিতা তুলে ধরেন বিহার পুলিশের কাছে। অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ‘সেদিন কথা বলতে গিয়ে সুশান্ত বেশ আবেগঘন হয়ে পড়েন। জানান, রিয়ার সঙ্গে এই সম্পর্কে তিনি খুশি নন। রিয়া প্রতিনিয়ত তাকে উত্যক্ত করে। ওর ব্যবহারেও খুব অসন্তুষ্ট। খুব তাড়াতাড়ি এই সম্পর্ক থেকে বেরোতে চান। ’ যাবতীয় প্রমাণসহ অঙ্কিতা তার দেওয়া সব তথ্যই পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন। বিহার পুলিশ সবটা খতিয়ে দেখছে।

এর মাঝেই মুম্বাই পুলিশের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ এনেছে সুশান্তের পরিবারের এক সদস্য। তার কথায়, ‘মুম্বাই পুলিশের কেউ রিয়াকে সাহায্য করছেন। ’

সুশান্ত সিংয়ের সাবেক ম্যানেজার দিশার মৃত্যুর পর রিয়া চক্রবর্তী সুশান্তের মোবাইল নাম্বার ব্লক করে দিয়েছিলেন বলেও শোনা যায়। তাই তার প্রাক্তন ম্যানেজারের মৃত্যুর সঙ্গে সুশান্তের মৃত্যুরহস্য জড়িত থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর তাই বিহার পুলিশও দিশা সালিয়ানের মৃত্যুকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে।