সোমবার, ০৩ আগষ্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

July 31, 2020, 8:32 p.m.

শিগগিরই বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হবে - পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী
শিগগিরই বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হবে - পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী
ভোরের আলো - ছবি:

পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম বলেছেন, দেশে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। অভ্যন্তরীণ নদীর পানি স্থিতিশীল থাকলেও ধীরে ধীরে বঙ্গোপসাগরে পানি নেমে যাচ্ছে। উজানের দেশ ভারত, নেপাল ও ভুটানে আগামী কয়েক দিনে ভারি বৃষ্টি না হলে বাংলাদেশের নদ-নদীর পানি কমবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

শুক্রবার দুপুরে বরিশাল সদর উপজেলার কীর্তনখোলা ও আড়িয়ালখাঁ নদীর ভাংগনকবলিত এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, নদ-নদীর পানি নেমে গেলে স্বস্তি ফিরে আসবে। দেশের ৬৪ জেলায় ৪৩২টি খাল খননের কার্যক্রম চলছে। অবৈধ দখলদার উচ্ছেদসহ নানা কারণে খাল খনন কার্যক্রম বিলম্বিত হয়েছে। খাল খনন শেষ হলে সারাদেশে ৫শ’ নদী খননের কাজ শুরু হবে। এই কার্যক্রম শেষ হলে বন্যার সময় নদ-নদীতে পানির ধারণক্ষমতা আগের চেয়ে বাড়বে। তখন নদ-নদীতে পানি বাড়লেও প্লাবনের তীব্রতা কমে আসবে।

এর পূর্বে সকালে স্পিডবোটযোগে কীর্তনখোলা নদীর ভাংগনকবলিত সদর উপজেলার চরবাড়িয়া, চরমোনাই ও লামছড়ি এবং আড়িয়ালখাঁ নদীর কালীগঞ্জ এলাকা পরিদর্শন করেন। এ সময় নদী ভাংগনে দিশেহারা মানুষ দ্রুত ভাংগন প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রতিমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করেন। প্রতিমন্ত্রী পানি উন্নয়ন বোর্ডের টেকনিক্যাল কমিটির সার্ভে রিপোর্ট পাওয়ার পর প্রয়োজন অনুযায়ী জিও ব্যাগ পেলে জরুরি ভিত্তিতে এবং প্রকল্পের মাধ্যমে স্থায়ী ভিত্তিতে ভাংগন প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন।

পরিদর্শনকালে পানি উন্নয়ন বোর্ড দক্ষিনাঞ্চল জোনের প্রধান প্রকৌশলী মো. হারুন-অর রশিদ ও সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান মধুসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।