মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বার ২০২০, ৮ আশ্বিন ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

Aug. 3, 2020, 8:35 p.m.

প্রখ্যাত আলেম মুর্শিদুলের জানাজায় মানুষের ঢল
প্রখ্যাত আলেম মুর্শিদুলের জানাজায় মানুষের ঢল
সোমবার (০৩ আগস্ট) বেলা ১১টায় রামু খিজারি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত জানাজা। - ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাসকে উপেক্ষা করে প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন ও কক্সবাজারের রামুর অফিসেরচর ইসলামিয়া কওমিয়া কাছেমুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মুফতি মুর্শিদুল আলম চৌধুরীর জানাজায় মানুষের ঢল নেমেছে। সোমবার (০৩ আগস্ট) বেলা ১১টায় রামু খিজারি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত জানাজায় কয়েক হাজার মানুষ অংশ নেয়। জানাজায় ইমামতি করেন মুফতি মুর্শিদুল আলম চৌধুরীর একমাত্র ছেলে মাওলানা হাফেজ তারেক।

জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হয়। 

রোববার (০২ আগস্ট) বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিটে রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের সিপাহিরপাড়া গ্রামের বাড়িতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন মুফতি মুর্শিদুল আলম চৌধুরী। তিনি রামুর বিশিষ্ট জমিদার মরহুম সুলতান আহমদ সওদাগরের সপ্তম ছেলে। তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। কয়েক দিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। স্ত্রী, চার মেয়ে, এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন মুফতি মুর্শিদুল আলম।

মুফতি মুর্শিদুল আলম বাংলাদেশ তাবলিগ জামাতের জাতীয় মজলিশে শুরা সদস্য এবং কক্সবাজার জেলা তাবলিগ জামাতের আমির। আন্তর্জাতিকভাবে প্রসিদ্ধ মুফতি ছিলেন তিনি। তাবলিগ জামাতের দাওয়াত প্রচার করতে গিয়ে বিশ্বের ৪০টিরও বেশি দেশ ভ্রমণ করেছেন মুফতি মুর্শিদুল।

দীর্ঘদিন ধরে রামুর ঐতিহ্যবাহী ফতেখাঁরকুল অফিসেরচর ইসলামিয়া কওমিয়া কাছেমুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন তিনি। মাদরাসা জামে মসজিদে মৃত্যুর আগের দিন (শনিবার) পবিত্র ঈদুল আজহা এবং দুদিন আগে পবিত্র জুমার নামাজে ইমামতি করেছেন মুফতি মুর্শিদুল আলম।