মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবার ২০২০, ৬ কার্তিক ১৪২৭

অনলাইন ডেস্ক

Sept. 5, 2020, 12:51 p.m.

ইতি টানলেন ১৬ বছরের ক্যারিয়ারের
ইতি টানলেন ১৬ বছরের ক্যারিয়ারের
ইতি টানলেন ১৬ বছরের ক্যারিয়ারের - ছবি:


আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সঙ্গে বিচ্ছেদের কারণ ছিল ইনজুরি। দীর্ঘ চোটজনিত সমস্যায় ক্যারিয়ারটা বড় হয়নি তার, খেলতে পেরেছেন মাত্র ৯ টেস্ট ও ৪ ওয়ানডে। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটের বড় নাম ইংল্যান্ডের ৬ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার পেসার গ্রাহাম অনিয়নস। ডারহামের হয়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়, তবে শেষটা করেছেন ল্যাঙ্কাশায়ারের হয়ে।

কিন্তু আরও খেলার ইচ্ছাটা পূরণ করতে পারলেন না ৩৭ বছর বয়সী এ পেসার। পিঠের ব্যথার কারণে ইতি টানলেন ১৬ বছরের ক্যারিয়ারের। ইনজুরির কারণে চলতি বছরের বব উইলিস ট্রফির আগেই ছিটকে যান অনিয়নস। শেষপর্যন্ত ডাক্তারি পরামর্শ নিয়ে অবসরের সিদ্ধান্তই জানালেন তিনি।

ইংল্যান্ড জাতীয় দলের হয়ে ২০০৯ থেকে ২০১২ পর্যন্ত সময়ে নয়টি টেস্ট খেলেছেন অনিয়নস। সেখানেও ছিল ইনজুরির হানা। ওয়ানডে ফরম্যাটে তার খেলা চারটি ম্যাচই ছিল ২০০৯ সালে। ঐতিহাসিক লর্ডসে নিজের অভিষেক ম্যাচেই পাঁচ উইকেট শিকার করে নাম তুলেছিলেন অনার্স বোর্ডে। সবমিলিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে শিকার করেছেন ৩২ উইকেট।

ইনজুরির কারণে অবসরের সিদ্ধান্ত জানানোটা আশা করেননি অনিয়নস। তিনি বলেছেন, ‘এভাবে আমি খেলা থেকে বিদায় নিতে চাইনি। তবে আমাকে চিকিৎসকদের কথা শুনতে হবে। সামনের বছরগুলিতে আমার স্বাস্থ্য-সুরক্ষার কথা ভেবে সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে।’

তবে কোনো আক্ষেপ নেই ডানহাতি এ পেসারের, ‘যতদিন খেলেছি আমার সর্বোচ্চটা উজাড় করে দিয়েছি এবং ক্যারিয়ার শেষে কোনো আক্ষেপ নেই। অ্যাশেজ জয়ী ইংল্যান্ড দলের অংশ হওয়া থেকে শুরু করে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ডারহামের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি, ক্যারিয়ার শুরুর আগে যতটা স্বপ্ন দেখেছিলাম তার চেয়ে বেশি অর্জন করেছি।’

২০০৩ সালে ডারহামের হয়ে গ্ল্যামারগনের বিপক্ষে শুরু হয়েছিল অনিয়নসের পেশাদার ক্যারিয়ার। শেষ ম্যাচটি তিনি খেলেছেন গতবছরের সেপ্টেম্বরে, ল্যাঙ্কাশায়ারের হয়ে মিডলসেক্সের বিপক্ষে। মাঝের ১৬ বছরে ১৯২ প্রথম শ্রেণি, ৯৯ লিস্ট এ এবং ৪৭ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন অনিয়নস। 


অর্জনের পাল্লাটাও বেশ ভারী তার। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে ডারহামের হয়ে গড়েছেন সর্বোচ্চ উইকেটশিকারের রেকর্ড। সবমিলিয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ইনিংসে ৩১ বার পাঁচ উইকেটসহ মোট শিকার ৭২৩ উইকেট। এছাড়া লিস্ট এ'তে ১১৩ ও টি-টোয়েন্টিতে তার ঝুলিতে রয়েছে ৩৮টি উইকেট। 


ভোরের আলো/ভিঅ/৫/২০২০