বুধবার, ২৮ অক্টোবার ২০২০, ১৩ কার্তিক ১৪২৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Sept. 10, 2020, 10:45 p.m.

ভারত অক্সফোর্ডের টিকার ট্রায়াল স্থগিত করল
ভারত অক্সফোর্ডের টিকার ট্রায়াল স্থগিত করল
সংগৃহীত। - ছবি:

ব্রিটেনের ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্ট কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি নভেল করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের পরীক্ষা এবার ভারতেও স্থগিত করা হয়েছে। ভারতে এই ভ্যাকসিনের ট্রায়ালের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া গতকাল বৃহস্পতিবার বলেছে, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা বিশ্বজুড়ে ট্রায়াল পুনরায় শুরু না করা পর্যন্ত ভারতেও স্থগিত থাকবে।

একজন স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে ভাইরাসটির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়ায় বিশ্বজুড়ে ভ্যাকসিনটির ট্রায়াল স্থগিত করে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।

বিশ্বের বৃহত্তম ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থা ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট এক বিবৃতিতে বলেছে, আমরা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করছি। একই সঙ্গে ভারতে ভ্যাকসিনটির ট্রায়াল আপাতত স্থগিত করা হয়েছে।

এর আগে, মঙ্গলবার অ্যাস্ট্রাজেনেকা এক বিবৃতিতে পরীক্ষামূলক ভ্যাকসিনটির ট্রায়াল বিশ্বজুড়ে স্থগিত রাখার ঘোষণা দেয়। ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে অংশ নেয়া এক স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে হঠাৎ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়ায় বিশ্বজুড়ে এর ট্রায়াল স্থগিত করা হয়।

অ্যস্ট্রাজেনেকা ট্রায়াল স্থগিতের ঘোষণা দিলেও এর অংশীদার সিরাম ইনস্টিটিউট ভারতে ট্রায়াল চলমান থাকবে বলে বুধবার জানায়। কিন্তু ভ্যাকসিনটির ট্রায়াল বিশ্বজুড়ে স্থগিত হয়ে যাওয়ার ব্যাপারে জানতে সিরাম ইনস্টিটিউটের কাছে একটি নোটিশ পাঠান ভারতের ওষুধ নিয়ন্ত্রক অধিদফতরের (ডিসিজিআই) মহাপরিচালক ভি. জি সোমানি।

নোটিশে ভারতে কেন অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনের ট্রায়াল স্থগিত রাখা হবে না, সেব্যাপারে বিস্তারিত জানতে চান তিনি। রোগীর নিরাপত্তা নিশ্চিত না হলে এবং যথাযথ ব্যাখ্যা দিতে না পারলে সিরাম ইনস্টিটিউটের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও সতর্ক করে দেন ভারতীয় এই কর্মকর্তা।

পরে গতকাল বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে ডিসিজিআইয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী ভারতেও ভ্যাকসিনটির ট্রায়াল স্থগিত করা হয়েছে বলে জানায় সিরাম ইনস্টিটিউট।

সুরক্ষা এবং কার্যকরিতা জানার জন্য গত আগস্টে ভারতে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা চালানোর জন্য সিরাম ইনস্টিটিউটকে অনুমোদন দেয় ডিসিজিআই।

শিগগিরই ভ্যাকসিনটির ট্রায়াল শুরু হতে পারে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্যাসকেল সোরিওট। গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি বলেছেন, ট্রায়াল পুনরায় শুরু হলে চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই ভ্যাকসিন মানুষকে কোভিড-১৯ সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে পারবে কিনা, সেব্যাপারে জানা যাবে।