শুক্রবার, ২৩ অক্টোবার ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

Sept. 13, 2020, 7:37 p.m.

বরিশালে ন্যায্য মূল্যে পন্য বিক্রি শুরু করেছে টিসিবি
বরিশালে ন্যায্য মূল্যে পন্য বিক্রি শুরু করেছে টিসিবি
বরিশালে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) নির্ধারিত মূল্যে পণ্য বিক্রি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। - ছবি:


বরিশালে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) নির্ধারিত মূল্যে পণ্য বিক্রি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রতিদিন নগরীর ৫টি পয়েন্টে ট্রাকে করে সয়াবিন তেল, চিনি, ডাল ও পিঁয়াজ বিক্রি করবে টিসিবি’র ডিলাররা। এছাড়া প্রতিদিন জেলা শহরে ২জন ডিলার এবং ৫টি করে উপজেলায় ১জন করে ডিলার টিসিবি পন্য বিক্রি করবেন। বাজারের চেয়ে তুলনামূলক কম দামে পন্য কিনতে পেরে খুশী ক্রেতারা। এই কার্যক্রম চলবে বলে জানিয়েছেন টিসিবি কর্মকর্তারা। 

 রবিবার থেকে নিত্যপন্যের উর্ধ্বগতি রোধে সারা দেশের মতো বরিশালেও শুরু হয়েছে নির্ধারিত মূল্যে টিসিবি’র পণ্য বিক্রি কার্যক্রম।
গতকাল সকালে নির্ধারিত ডিলাররা ব্যাংকে টাকা জমা দেয়ার পর নগরীর ত্রিশ গোডাউন টিসিবি’র গোডাউন থেকে পিয়াজ, সয়াবিন, মসুর ডাল ও চিনি উত্তোলন করে। পরে তারা বিভিন্ন পয়েন্টে ট্রাকে এসব পন্য বিক্রি শুরু করেন। 

বাজারে ৫০ টাকা কেজি দরের পিয়াজ টিসিবি ডিলারের কাছ থেকে ৩০ টাকা কেজি দরে কিনতে পেরে খুশী ক্রেতারা। এছাড়া বাজারের চেয়ে কম মূল্যে প্রতি লিটার সয়াবিন ৮০ টাকা, চিনি প্রতি কেজি ৫০ টাকা এবং ৫০ টাকা কেজি দরে মসুর ডাল কিনতে পেরে স্বাচ্ছন্দ রোধ করেন তারা। পন্যের গুণগত মানেও সন্তুষ্ট তারা। এই কার্যক্রম অব্যাহত রাখার দাবি জানিয়েছেন ক্রেতারা। 

টিসিবি বরিশাল অফিস প্রধান আয়শা বেগম জানান, বরিশাল বিভাগের ৬ জেলা ও মহানগরে টিসিবি’র মোট ১৮২ জন ডিলার রয়েছে। প্রতিদিন নগরীর ৫টি পয়েন্টে ট্রাকে করে সয়াবিন তেল, চিনি, ডাল ও পিঁয়াজ বিক্রি করছে টিসিবি’র ডিলাররা। এছাড়া প্রতিদিন জেলা শহরে ২জন ডিলার এবং ৫টি করে উপজেলায় ১জন করে ডিলার টিসিবি পন্য বিক্রি করবেন। পর্যায়ক্রমে সব উপজেলায় সব ডিলাররা পন্য বিক্রি করতে পারবেন। বিক্রির জন্য প্রচুর পন্য মজুদ রয়েছে। আগামী পহেলা অক্টোবর পর্যন্ত পন্য বিক্রির নির্দেশনা আছে বলে তিনি জানান।