শনিবার, ২৮ নভেম্বার ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

সাইফুর রহমান মিরণ

Oct. 3, 2020, 11:23 p.m.

উন্নয়ন বঞ্চিত বাকেরগঞ্জবাসীর ভরোসা মহসিন
উন্নয়ন বঞ্চিত বাকেরগঞ্জবাসীর ভরোসা মহসিন
ভোরের আলো। - ছবি:

স্থানীয় সাংসদের অবহেলা, জনবিচ্ছিন্নতা এবং উদ্যোগহীনতার কারণে উন্নয়নবঞ্চিত জনপদ হিসেবে পরিচিতি পাচ্ছে বাকেরগঞ্জ উপজেলা। সড়ক, সেতুসহ অবকাঠামো উন্নয়ন না হওয়ায় ক্ষুব্ধ এলাকার সাধারণ মানুষ। এলাকাবাসীর যোগাযোগ ব্যবস্থার কিছুটা উন্নয়নে ভূমিকা রেখে আস্থা জাগিয়ে তুলেছেন জোটের সরিক দল জাসদ নেতা মোহাম্মদ মহসিন।

মহসিনের প্রচেষ্টায় দীর্ঘদিন পর বরিশালের সঙ্গে বাকেরগঞ্জের পূর্বাঞ্চলের দুর্গম যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন হচ্ছে। বরিশাল-কাটাদিয়া-দাড়িয়াল সড়কের মাটিভাঙা নদীতে ফেরী সার্ভিস চালু হওয়ায় কিছুটা সহজ হয়েছে সড়ক যোগাযোগ। আরও বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্প একনেকে অনুমোদন হয়েছে। উন্নয়ন বঞ্চিত বাকেরগঞ্জের এসব পকল্প বাস্তবায়নে সহযোগী হয়ে কাজ করছেন জাসদ নেতা মোহাম্মদ মহসিন।

তবে কাটাদিয়ায় ফেরী সার্ভিস চালু করার ব্যাপারে স্থানীয় সাংসদ ও জাতীয় পার্টির নাসরিন জাহান রত্নার ভূমিকা রয়েছে দাবি করা হয়। সেই দাবি তুলে তিনি অক্টোবর মাসের ২৩ তারিখ ফেরি ঘাটে শোডাউন করে ফেরি সার্ভিসের উদ্বোধন করেন। বিষয়টি ভালোভাবে নেয়নি স্থানীয়রা।

এর একদিন পর গত মাসের ২৪ তারিখ বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রাঙ্গামাটি নদীর উপর দাড়িয়াল-কাটাদিয়া ফেরির শুভ উদ্বোধন করেন জাসদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ মহসিন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মহসিনের প্রচেষ্টা এবং জোটের সরিক ওয়ার্কার্স পাটি নেতা ও সাবেক সমাজকল্যাণ, বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেননের সরাসরি হস্তক্ষেপে সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দ্রুত ওই উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছেন।

কাটাদিয়া এলাকার একাধিক বাসিন্দা জানান, ফেরীঘাটটি পেতে স্থানীয় বাসিন্দা বাকেরগঞ্জ উপজেলার অবহেলিত জনগোষ্ঠীর সুবিধার কথা বিবেচনা করে চরামদ্দি ও দাড়িয়াল ইউনিয়নের মধ্য যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য রাঙামাটি নদীতে ফেরী সার্ভিস চালু হয়। ফেরী স্থাপনের জন্য মহাজোটের সরিক দল জাসদ নেতা মহসিন একান্তভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করেন। স্থানীয় সাংসদের কোন ভূমিকাই ছিল না। মহসিনের প্রচেষ্টায় ফেরী সার্ভিস চালু হলেও মহাজোটের সরিক জাতীয় পার্টির সাংসদ নাসরিন জাহান রত্না শোডাউন করে ২৩ সেপ্টেম্বর ফেরি উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মহসিনকে নিমন্ত্রণও করা হয়নি। পরে ২৪ সেপ্টেম্বর বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীর নিয়ে পুনরায় উদ্বোধন করেন জাসদ নেতা মোহাম্মদ মহসিন।

সড়ক বিভাগ জানায়, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রীর নির্দেশে বরিশাল-পেয়ারপুর সড়কের গোমায়ও সেতু নির্মাণ কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। অক্টোবরের ২২ তারিখ চন্দ্রমোহন, টুমচর এবং ছিদ্দিক বাজার নদীতের সেতু নির্মাণ কাজের দরপত্র আহ্বান করা হবে। এ ছাড়া একই সড়কের নেহালগঞ্জ মাটিভাঙা নদীতের সেতু নির্মাণ কাজের দরপত্র আহ্বন করা হবে ২৮ অক্টোবর। ৩০২ কোটি টাকা ব্যায়ে বরিশালের বৈরাগী বাড়ি পুল থেকে নেহালগঞ্জ-টুমচর-চন্দ্রমোহন হয়ে বাউফল সড়ক পর্যন্ত ৪৫ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ কাজও শুরু হবে। ২০১৮ সালের অক্টোবরে একনেকে ওই প্রকল্প অনুমোদন হয়। এসব উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে বরিশাল জেলার সঙ্গে বাকেরগঞ্জের প্রত্যন্ত অঞ্চল ছাড়াও পটুয়াখলী জেলার বাউফল উপজেলার সঙ্গেও সড়ক যোগাযোগ সহজতর হবে।

জাসদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ মহসিন বলেন, বাকেরগঞ্জের পূর্বাঞ্চল উন্নয়ন বঞ্চিত। স্থানীয় সংসদ সদস্য অরাজনৈতিক জনবিচ্ছিন্ন। গত ১২ বছরের বাকেরগঞ্জের উন্নয়নে তিনি কোন ভূমিকাই রাখেননি। বাকের গঞ্জের পূর্বাঞ্চলের কেবল মাটিভাঙা নদীতে ফেরি সার্ভিস নয়, বরিশাল থেকে বৈরাগীর বাড়ি পুল হয়ে নেহালগঞ্জ-ছিদ্দিক বাজার-বাউফল সড়কের ৪৫ কিলোমিটারের উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন হয়েছে। গোমা সেতু নির্মাণসহ এলাকার উন্নয়নে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সাবেক মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন সর্বাত্মক সহযোগিতা দিয়েছেন। পরবর্তী সময় আরও একাধিক প্রকল্প অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে।