শুক্রবার, ২৭ নভেম্বার ২০২০, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

নিজস্ব প্রতিবেদক

Oct. 16, 2020, 10:39 p.m.

বরিশালে স্বেচ্ছাসেবকদলের মতবিনিময় সভা ভণ্ডুল করার চেষ্টা : কেন্দ্রীয় নেতাদের ক্ষোভ
বরিশালে স্বেচ্ছাসেবকদলের মতবিনিময় সভা ভণ্ডুল করার চেষ্টা : কেন্দ্রীয় নেতাদের ক্ষোভ
বরিশালে বিভাগীয় ও মহানগর স্বেচ্ছাসবক দলের মতবিনিময় সভা। - ছবি: ভোরের আলো।

বরিশালে বিভাগীয় ও মহানগর স্বেচ্ছাসবক দলের মতবিনিময় সভা ভণ্ডুলের চেষ্টা করেছে স্থানীয় নেতা-কর্মীরা। মতবিনিময় সভায় আসা কেন্দ্রীয় নেতারা স্থানীয় নেতাদের প্রতি চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। স্বেচ্ছাসেবক দলের সভায় কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও বরিশাল মহানগর বিএনপি সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ারের নাম উচ্চরণ করে শ্লোগান দিয়ে বিশৃঙ্খলায় স্বেচ্ছাসেবক দলের মতবিনিময় সভা ভণ্ডু ল হওয়ার উপক্রম হয়। এঘটনায় কেন্দ্রীয় নেতারা ক্ষব্ধ হন।

গতকাল শুক্রবার সকাল ১০ টায় সদররোডস্থ জেলা ও মহানগর বিএনপি দলীয় কার্যলয়ে বিভাগীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কেন্দ্রীয় বিএনপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশক্রমে ক্ষাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের রাজনৈতিক কর্মকান্ড গতিশীল ও বেগবান করার লক্ষে বরিশাল মহানগরসহ বিভাগীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের ওই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

স্বেচ্ছাসেবক দলের মতবিনিময় সভা উপলক্ষে জেলা ও মহানগর বিএনপি দলীয় কার্যলয়ে বিএনপি, যুবদল, শ্রমিক দল ও ছাত্রদলের সদস্যরা মিছিল সহকারে দলীয় শ্লোগান ব্যবহার না করে বরিশাল মহানগর বিএনপি সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ারের নাম উচ্চরণ করে শ্লোগান দিতে থাকে। মতবিনিময় সভায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্যই এমন কাজ করা হয়েছে বরে মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতারা। এঘটনায় তারা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন তারা।

সভা শুরুর কিছক্ষণ পরপরই মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলেরে সিনিয়র সহসভাপতি জাহিদুল ইসলাম সমির ও মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেদুজ্জামান রাসেদের নেতৃত্বে মহানগরের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে বিএনপিসহ দলের অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীরা মিছিল সহকারে এসে দলীয় কার্যলয়ের সামনে অবস্থান নেয়। সেখানে তারা কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও বরিশাল মহানগর বিএনপি সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ারের নামে শ্লোগান দিতে থাকে। তারা মতবিনিময় সভা ভ-ুল করতে চায়।

স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সভাপতি ফরিদ উদ্দিন আহমেদ সভাস্থল ছেড়ে নিচে নেমে এসে স্থানীয় নেতাদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। নিজেই দলীয় কার্যলয় থেকে আসা বিএনপি, যুবদল, শ্রমিকদল ও ছাত্রদল ওয়ার্ড নেতা কর্মীদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। এসময় কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি বলেন, ‘আপনারা যদি স্বেচ্ছাসেবক দলের মত বিনিময় সভার পরিবেশ নষ্ট করেন তাহলে আমাদেরকে বলেন আমরা এখান থেকে চলে যাব। তবে সভা ভন্ডুল হলে এর দায় নিতে হবে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি সমিরকে।’

এরপর তিনি মতবিনিময় সভা শুরু করেন। তবে কার্যালয়ের সামনে থেকে স্থানীয় নেতারা সরে গেলেও আশপাশে গ্রুপ গ্রুপ হয়ে অবস্থান নেয়।

স্বেচ্ছাসেবক দল কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সভাপতি ও বরিশাল বিভাগের প্রধান ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বরিশাল বিভাগীয় টিম লিডার ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সভাপতি আজহারুল হক মুকুল। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান আরিফ, কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক সরদার মো. নুরুজ্জামান, কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক ফজলুল কবীর জুয়েল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বেলাল আহমেদ, মাহাবুবুর রহমান পিন্টু প্রমুখ।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বরিশাল মহানগর সেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি জাহিদুল ইসলাম সমির, সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান মঞ্জু, যুগ্ম সম্পাদক খান মো. আনোয়ার, সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেদুজ্জামান রাসেদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল সিনিয়র সহ-সভাপতি আতাউর রহমান আওয়াল, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জনি, যুগ্ম সম্পাদক আজিজুর রহমান ভূইয়া মামুন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাবের আব্দুল্লাহ সাদিসহ বরিশাল বিভাগের ৬ জেলার স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্যরা মত বিনিময় সভায় অংশ নেন।

মত বিনিময় সভায় কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আজহারুল হক মুকুল সংগঠনের সুপার পাঁচ নেতাদের বলেন, আপনারা কারো বদনাম হিংসা-প্রতিহিংসা নয়। পিছনের দলাদলির কথা ভুলে গিয়ে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও দলীয় চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার দলকে আরো কি করে সু সংগঠিত গতিশীল বেগবান করা যায় সে প্রসঙ্গে নেতাদের দিক নির্দেশনা দেন।