বুধবার, ২৫ নভেম্বার ২০২০, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

অনলাইন ডেস্ক

Oct. 26, 2020, 11:59 p.m.

কন্যা শিশু দিবসে টেলিনরের শীর্ষ পদে বাংলাদেশের রেনেকা
কন্যা শিশু দিবসে টেলিনরের শীর্ষ পদে বাংলাদেশের রেনেকা
ভোরের আলো - ছবি:

গ্রামীণফোনের মূল কোম্পানি টেলিনর গ্রুপে শীর্ষ নির্বাহী পদে একদিনের প্রতীকি দায়িত্ব পেলেন বাংলাদেশের রেনেকা আহমেদ অন্তু।

আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস পালনের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ, নরওয়ে ও মিয়ানমারের অনেকের মধ্য থেকে রেনেকাকে বেছে নেওয়া হয়েছে। গ্রামীণফোন সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবছর এই দিন সামনে রেখে তরুণীদের সাম্য, স্বাধীনতা ও প্রতিনিধিত্বে উৎসাহ দিতে বিশ্বব্যাপী মিডিয়া, বিনোদন, ব্যবসা ও রাজনীতির ক্ষেত্রে শীর্ষস্থানীয় পদে একদিনের জন্য তরুণ নারীদের প্রতীকি দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এবছর তিনটি দেশে টেলিনরের গ্রুপ এক্সিকিউটিভ ম্যানেজমেন্টের গুরুত্বপূর্ণ পদে ভূমিকা গ্রহণের সুযোগ দেওয়া হয় তরুণীদের। তাদের মধ্যে টেলিনর গ্রুপের এক্সিকিউটিভ পদের জন্য নির্বাচিত হয় রেনেকা।

গ্রামীণফোনের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অল্পবয়স থেকেই রেনেকা নারী অধিকার ও লৈঙ্গিক সমতা নিয়ে কাজ করে আসছে। ২০২০ সালে ইয়ুথ অ্যাডভোকেট হিসেবে সে শীর্ষ পর্যায়ে রাজনৈতিক ফোরামে অংশগ্রহণ করে। নৃবিজ্ঞানে পড়াশোনা করা রেনেকা সমাজে কন্যা, তরুণী ও নারীদের জন্য ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে সক্রিয়ভাবে কাজ করে আসছে।

রেনেকা বলেন, একজন নারী ও সচেতন নাগরিক হিসেবে নিরাপদ ও সুরক্ষিত পরিবেশে আমি আমার অধিকারের বাস্তবায়ন চাই। সবারই উচিত নারীদের সম্মান করা এবং সরকারি ও বেসরকারি খাতে তাদের অবদানের মূল্য দেওয়া।

তিনি বলেন, সমাজে আমি তরুণ প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে যাওয়ার পাশাপাশি বৈশ্বিকভাবে লৈঙ্গিক সমতার ক্ষেত্রে ক্ষমতার স্থানান্তর করতে চাই। এক্ষেত্রে আমাকে এমন অসাধারণ অভিজ্ঞতা গ্রহণের সুযোগ করে দেওয়ায় আমি গ্রামীণফোন, টেলিনর গ্রুপ ও প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কাছে কৃতজ্ঞ।

টেলিনরের গ্রুপ এক্সিকিউটিভ ম্যানেজমেন্টের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত তিন তরুণী প্রযুক্তিখাতে নারী বিষয়ে ভার্চুয়াল মাধ্যমে তাদের ভাবনা উপস্থাপন করেন। তাদের উপস্থাপনায় স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রযুক্তিখাতে নারীদের নানা সুযোগ ও অন্তরায়ের বিষয়গুলো উঠে আসে।

এ বিষয়ে অনুপ্রাণিত হয়ে টেলিনর গ্রুপের প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী সিগভে ব্রেক্কে নিজ দেশে টেলিনর টেলিকমিউনিকেশনের প্রধান নির্বাহীদের সাথে তিন তরুণীকে যুক্ত করতে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন, যাতে তরুণ এ প্রতিনিধিরা তাদের ভাবনার কথা জানাতে পারেন। 

সিগভে ব্রেক্কে বলেন, সবার জন্য প্রয়োজনীয় সেবার উন্নয়নে আমরা নিরলস কাজ করে যাচ্ছি। এক্ষেত্রে সফল হতে আমাদের নিজেদের মধ্যে সবার ধারণা সম্পর্কে জানা প্রয়োজন। আজ সকালে আমি তিন তরুণ নারীর সাথে কথা বলেছি।

তিনি বলেন, আমি তাদের দেশে ও বৈশ্বিকভাবে প্রযুক্তি বিষয়ে ভাবনার পরিসর বুঝতে চেষ্টা করেছি। তাদের সাথে আলোচনায় অনেক ইতিবাচক বিষয় উঠে এসেছে। এ আলোচনায় এটা সুস্পষ্ট যে, প্রযুক্তিখাতে মেধাবীদের যুক্ত হওয়ার ক্ষেত্রে যেসব বিষয় অন্তরায় হিসেবে কাজ করছে তা দূরীকরণে আমাদের আরও কাজ করতে হবে।

প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের সাথে যৌথভাবে ‘গার্লসটেকওভার’ ক্যাম্পেইন আয়োজন করেছে গ্রামীণফোন ও টেলিনর গ্রুপ। তরুণীদের সমতাকে অগ্রাধিকার দিয়ে শিশু ও তরুণদের অধিকার রক্ষায়, বিস্তৃত পরিসরে ডিজিটাল ও মোবাইল প্রযুক্তি সমাধান নিয়ে কাজ করতে ২০১৮ সালে এ বৈশ্বিক পার্টনারশিপের যাত্রা হয়।